Sun Mercury Venus Ve Ves
বিশেষ খবর
লক্ষ্মীপুরে মডেল থানা পুলিশের আলোচনা সভা ও আনন্দ উদযাপন  লক্ষ্মীপুরে বিএনপি নেতা ইউপি চেয়ারম্যান কামরুজ্জামান সোহেলের সংবাদ সম্মেলন  লক্ষ্মীপুর মডেল থানায় ওসি (তদন্ত) শিপন বড়ুয়ার যোগদান  ঘর মেরামতে ঢেউটিন উপহার পেলেন লক্ষ্মীপুরের দৃষ্টিপ্রতিবন্ধী জসিম  রায়পুর প্রেস ক্লাবের নির্বাচনে সভাপতি মাহবুবুল আলম মিন্টু ও সম্পাদক আনোয়ার হোসেন নির্বাচিত 

এম হেলালের পিএইচডি ডিগ্রি লাভে বিভিন্ন মহলের অভিনন্দন

লক্ষ্মীপুর বার্তা পত্রিকা ও বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস পত্রিকার সম্পাদক এবং ক্যাম্পাস সোস্যাল ডেভেলপমেন্ট সেন্টার (সিএসডিসি) এর প্রতিষ্ঠাতা ও লক্ষ্মীপুর বার্তা ফাউন্ডেশন এর মহাসচিব, গ্রন্থকার, সমাজ সংস্কারক এম হেলাল তার বিরলধর্মী গবেষণার জন্য কানাডার আন্তর্জাতিক খ্যাতিমান ইউনিভার্সিটি থেকে সম্প্রতি পিএইচডি ডিগ্রি অর্জন করেছেন।
তার এই সম্মানপ্রাপ্তিতে সমাজের বিভিন্ন মহল থেকে তাঁকে অভিনন্দনসূচক বার্তা প্রেরণ করা হয়। এ উপলক্ষে অনেকে ফোনে এবং SMS-এও তাঁকে শুভেচ্ছা জানান। যাঁরা অভিনন্দন বার্তা পাঠিয়েছেন, তাঁদের প্রতি এম হেলালও তার কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।
উল্লেখ্য যে, সৃজনশীলতা ও চিন্তাশক্তি বৃদ্ধিঃ ছাত্র-তরুনদের মেধা ও মনন বিকাশ ঘটানোর প্রেক্ষাপটে পর্যালোচনা শীর্ষক গবেষণা অভিসন্দর্ভের জন্য সম্প্রতি এই পিএইচডি ডিগ্রি লাভ করেন এম হেলাল। কানাডার ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি তাকে এ ডিগ্রি প্রদান করে।
ক্যাম্পাস সমাজ উন্নয়ন কেন্দ্রের মহাসচিব এবং বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস পত্রিকার সম্পাদক এম হেলাল মানুষের চিন্তাশক্তি ও সৃজনশীল ক্ষমতার ওপর দীর্ঘদিন থেকে বহু প্রবন্ধ-নিবন্ধ লিখছেন এবং এরূপ বিভিন্ন বিষয়ে তার লেখা বহু বই প্রকাশিত হয়েছে, যা ছাত্র-তরুণ ও গবেষকদের নিকট সমাদৃত। এর ফলে গড়ে উঠছে একটি কর্মীবাহিনী, যারা শহরে-বন্দরে, দেশের সর্বত্র ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার আন্দোলনে সক্রিয় রয়েছে।
তার লেখা উল্লেখযোগ্য বই হচ্ছে সৃজনশীলতা ও চিন্তাশক্তি বৃদ্ধি এবং সাফল্যের শীর্ষ পথে; শিশু-কিশোরদেরকে রাষ্ট্রনায়কোচিত নেতারূপে গড়ে তোলার উপায়; উন্নত জাতির আধুনিক বাংলাদেশ ও অত্যাধুনিক বিশ্বের রূপরেখা; ন্যায়ভিত্তিক সমাজ এবং আলোকিত জাতির সন্ধানে বাংলদেশ ও বিশ্ব অধ্যয়ন; অবিরাম সাফল্যের বিশেষ মানুষ হতে ১০ দিগ্দর্শন; সুস্থতা ও শতায়ুলাভে প্রাকৃতিক চর্চা ও চিকিৎসা; বাংলাদেশের সকল সমস্যার স্থায়ী সমাধান মডেল; জাতীয় বহু সমস্যার একক সমাধানে এলাকাভিত্তিক স্কুলিং মডেল ইত্যাদি।
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ছাত্রনেতা জনাব হেলাল একাউন্টিং ডিপার্টমেন্ট থেকে অনার্স ও মাস্টার্স ডিগ্রি লাভ করেন। পঠিত বিষয়-সংশ্লিষ্ট লোভনীয় চাকরিতে না গিয়ে জীবনের লক্ষ্য হিসেবে বেছে নেন জাতি জাগরণ ও দেশ উন্নয়নের দুঃসাধ্য কাজ। গণমানুষের জন্য কাজ করাকে তার কর্মের মূলধারা বা জীবনের ব্রত বলে মনে করেন তিনি।
ড. হেলাল বাংলা একাডেমী, এশিয়াটিক সোসাইটি, নজরুল একাডেমীসহ বিভিন্ন সামাজিক সংগঠনের আজীবন সদস্য। ছাত্রজীবন থেকেই তিনি শিক্ষা ও সমাজ উন্নয়নে একনিষ্ঠভাবে নিবেদিত এবং বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান প্রতিষ্ঠার সাথে জড়িত। দেশ-উন্নয়ন ও জাতি-জাগরণের লক্ষ্যে তার প্রতিষ্ঠিত ‘ক্যাম্পাস’ সুদীর্ঘ ৩৫ বছর ধরে কাজ করছে। ২০২০ সালের মধ্যে বাংলাদেশে জ্ঞানভিত্তিক ও ন্যায়ভিত্তিক সমাজ এবং আলোকিত জাতি প্রতিষ্ঠা ক্যাম্পাস’র লক্ষ্য; যা বাস্তবায়নে এম হেলাল নেতৃত্ব দিয়ে চলেছেন। সাংবাদিকতায় দক্ষতা ও অভিজ্ঞতার স্বীকৃতিস্বরূপ ১৯৯০ সাল থেকে তিনি বাংলাদেশ সরকারের এক্রেডিটেশন কার্ড লাভ করেন।
তার স্ত্রী ড. নাজনীন আহমেদ একজন অর্থনীতিবিদ ও গবেষক। তিনি বিআইডিএস’র সিনিয়র রিসার্চ ফেলো, সরকারের পঞ্চবার্ষিক পরিকল্পনা প্রণয়ন কমিটির সদস্য, সরকারের পল্লী সঞ্চয় ব্যাংকের পরিচালক এবং বিশ্বব্যাংকের কনসালটেন্ট।