Sun Mercury Venus Ve Ves
বিশেষ খবর
সরকারের সচিব হলেন লক্ষ্মীপুরের সুসন্তান মোঃ হাবিবুর রহমান  অতিরিক্ত আইজিপি হলেন লক্ষ্মীপুরের কৃতী সন্তান মোহাম্মদ ইব্রাহীম ফাতেমী  লক্ষ্মীপুরে বঙ্গবন্ধু জাতীয় যুব দিবস পালিত  সকলের সহযোগিতা নিয়ে কাজ করতে চাই -মোহাম্মদ মাসুম, ইউএনও, লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলা  ফেনী জেলা পরিষদ শিশু পার্ক থেকে বিমুখ স্থানীয়রা 

কমলনগরে প্রাথমিক উপবৃত্তির টাকা প্রদানে অনিয়মের অভিযোগ

লক্ষ্মীপুরের কমলনগরে প্রাথমিক বিদ্যালয় ছাত্র-ছাত্রীদের মাঝে উপবৃত্তির টাকা নিয়ে হরিলুটের অভিযোগ উঠেছে। উপবৃত্তি কার্ড বিতরণের ১/২ দিন আগে শিক্ষার্থী প্রতি ৪০ থেকে ১৫০ টাকা হারে আদায়ের অভিযোগ পাওয়া যায়। এর পেছনে সংশ্লিষ্ট উপজেলা দপ্তরের কর্মকর্তাসহ এক শ্রেণির শিক্ষা প্রতিষ্ঠান প্রধানরা রয়েছেন বলে ভুক্তভোগীরা মনে করেন। উপকূল এলাকার শিক্ষার্থীদের সরলপ্রাণ অভিভাবকরা উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তার কাছে মৌখিক অভিযোগ করলেও কোনো ব্যবস্থা নেয়া হয়নি বলে জানান তারা।
নাম প্রকাশ না করার শর্তে কয়েকজন সহকারী শিক্ষক জানান, মেঘনা নদীর ভাঙনে প্রাথমিক বিদ্যালয়গুলোর কিছু প্রধান শিক্ষক লাভবান হচ্ছেন। এদের মধ্যে অনেকের কাছে দু’টি হাজিরা খাতা। অডিটে একটি বাস্তবে আরেকটি।
উপবৃত্তির বিভিন্ন অনিয়মে ক্ষোভ প্রকাশ করে উপজেলা আ’লীগের একনেতা জানান, মহাজোট সরকার শিক্ষাবান্ধব সরকার। আর শিক্ষাখাতে অনিয়ম মানে সরকারের বদনাম করা ছাড়া কিছুই না।
অভিযুক্ত প্রতিষ্ঠানগুলো হচ্ছেÑ চরজগবন্ধু মুন্সীপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, ডিএস ফলকন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, দক্ষিণ চরকালকিনি হাজী এছাক সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, উত্তরপূর্ব চরজাঙ্গালিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, দক্ষিণপূর্ব চরজগবন্ধু সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, তালতলি বাজার সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, চরজগবন্ধু সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, উত্তরপশ্চিম চরজগবন্ধু সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, দক্ষিণপূর্ব চরলরেন্স সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়।
শিক্ষার্থীদের উপবৃত্তির নামে টাকা নেয়ার অভিযোগে অভিযুক্ত প্রতিষ্ঠানগুলো হচ্ছে- মধ্য চরফলকন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, বোয়ালিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, পশ্চিম চরপাগলা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও উদয়ন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়।
উপবৃত্তির টাকা বিতরণের আগে উপজেলার ১৮টি স্পটে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান থেকে ৬৩ হাজার টাকা উঠিয়ে জনৈক কর্মকর্তাকে এনে দেন চরজাঙ্গালিয়ার একটি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের একজন শিক্ষক। এ ঘটনায় শিক্ষকদের মাঝে চাপা ক্ষোভ বিরাজ করছে।
অনিয়মের বিষয়ে কমলনগর উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা খগেন্দ্র চন্দ্র সরকার বলেন, একটি প্রক্রিয়ার মাধ্যমে ব্যাংক ও বিদ্যালয় প্রধানরা মিলে টাকা বিতরণ করেন। কার্ড দেখে দেখে শিক্ষার্থীদের কাছে টাকা বিতরণ করা হয়। কোনো অভিযোগ এখনো আসেনি। টাকা প্রদানে অনিয়মের অভিযোগটি সঠিক নয়। এরপরও খোঁজ-খবর নিয়ে ব্যবস্থা নেয়া হবে।
-জাহাঙ্গীর লিটন