Sun Mercury Venus Ve Ves
বিশেষ খবর
সরকারের সচিব হলেন লক্ষ্মীপুরের সুসন্তান মোঃ হাবিবুর রহমান  অতিরিক্ত আইজিপি হলেন লক্ষ্মীপুরের কৃতী সন্তান মোহাম্মদ ইব্রাহীম ফাতেমী  লক্ষ্মীপুরে বঙ্গবন্ধু জাতীয় যুব দিবস পালিত  সকলের সহযোগিতা নিয়ে কাজ করতে চাই -মোহাম্মদ মাসুম, ইউএনও, লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলা  ফেনী জেলা পরিষদ শিশু পার্ক থেকে বিমুখ স্থানীয়রা 

লক্ষ্মীপুরে আগাম শীতকালীন রকমারি সবজির উৎপাদন

লক্ষ্মীপুরে শীত মৌসুমের আগেই উৎপাদন হয়েছে শীতকালীন রকমারি সবজি। জেলার সদর উপজেলার কালিরচর, টুমচর, পিয়ারাপুর এবং মিয়ারবেড়ীঁ এলাকার সবজি বেশ ক’বছর ধরেই লক্ষ্মীপুর জেলাসহ বাইরের অনেক জেলায় আগাম যোগান দিচ্ছেন এখানকার কৃষকরা।
সূত্রে জানা যায়, এবারও আবহাওয়া প্রতিকূলে থাকা সত্ত্বেও এখানকার কৃষকরা আগাম সবজির আবাদ করে বেশ লাভবান হচ্ছে। এলাকার কৃষকরা গত কয়েক বছর থেকে অপেক্ষাকৃত উঁচু জমিতে বিভিন্ন জাতের আগাম সবজির আবাদ করে আসছেন।
কৃষকরা জানান, ধানের আবাদ করতে গিয়ে অব্যাহত লোকসান পোষাতেই তারা একের পর এক আগাম জাতের সবজির আবাদ করে আসছেন। শীতকালীন সবজির মধ্যে রয়েছে লাউ, যা পাইকারি বিক্রি হচ্ছে প্রতিশ আকারভেদে ৬ হাজার থেকে ৭ হাজার টাকা পর্যন্ত। মুলা মণপ্রতি ১৪শ থেকে ১৬শ টাকা, বরবটি-সিম কেজিপ্রতি ৫০ থেকে ৬০ টাকা, করলা কেজিপ্রতি ৪০ থেকে ৪৫ টাকা, প্রতিটি মিষ্টিকুমড়া ৪০ থেকে ৪৫ টাকায় বিক্রি করা হচ্ছে। আর সবজির আবাদে এখন লাভের মুখ দেখতে শুরু করেছেন কৃষকরা। এতে করে দিনকে দিন বাড়ছে আগাম সবজির আবাদ।
সদর উপজেলার কালিরচর, টুমচর, পিয়ারাপুর, চরমনসা, চরভুতাসহ বিভিন্ন গ্রামে ঘুরে দেখা যায়, শীতকালীন সবজিতে ভরে গেছে এসব গ্রাম। এমনকি প্রায় বাড়ির আঙ্গিনায় ও উঁচু জমিতে লাউ, সিম, লালশাক, মুলাসহ রকমারি শীতকালীন সবজিতে ভরে গেছে। সংসারের কাজের ফাঁকে মহিলারা ও লেখাপড়ার পাশাপাশি স্কুল পড়–য়া ছেলে-মেয়েরাও যোগান দিচ্ছে এই কৃষি আবাদে। তাই এখানকার কৃষক-কৃষাণীরা অত্যন্ত ব্যস্ত সময় পার করছেন সবজি বাজারজাত করতে; যেন অবসর নেই তাদের। কেউ ক্ষেত থেকে সবজি তুলছে কেউবা পরিষ্কার করে আঁটি বাঁধছে। আবার কেউ কেউ ক্ষেত থেকেই চড়া দামে পাইকারি বিক্রি করে দিচ্ছে সবজি। আর এসব শীতকালীন সবজি জেলা সদর ও উপজেলার বাজারগুলোতে চাহিদা মিটিয়ে ঢাকাসহ দেশের অন্যান্য স্থানের পাইকারদের কাছে বেশ চড়া দামেই বিক্রি করে দিচ্ছেন লক্ষ্মীপুরের আগাম শীতের সবজি।