Sun Mercury Venus Ve Ves
বিশেষ খবর
সরকারের সচিব হলেন লক্ষ্মীপুরের সুসন্তান মোঃ হাবিবুর রহমান  অতিরিক্ত আইজিপি হলেন লক্ষ্মীপুরের কৃতী সন্তান মোহাম্মদ ইব্রাহীম ফাতেমী  লক্ষ্মীপুরে বঙ্গবন্ধু জাতীয় যুব দিবস পালিত  সকলের সহযোগিতা নিয়ে কাজ করতে চাই -মোহাম্মদ মাসুম, ইউএনও, লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলা  ফেনী জেলা পরিষদ শিশু পার্ক থেকে বিমুখ স্থানীয়রা 

আমেরিকার বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষণায় লক্ষ্মীপুর!

উচ্চতর গবেষণার জন্য বিশ্ববিখ্যাত মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র তথা আমেরিকার ইউনিভার্সিটি অব ক্যালিফোর্নিয়া, আরভাইন (ইউসিআই) এর পিএইচডির একটি বিশেষ গবেষণায় স্থান পেয়েছে বাংলাদেশের উপকূলীয় জেলা লক্ষ্মীপুর। লক্ষ্মীপুরের নদী ভাঙ্গনের খবর সংবাদ মাধ্যম ও সামাজিক মাধ্যমে যে বিশেষভাবে ফুটে উঠেছে, তা দেখানোর চেষ্টা করা হয়েছে ওই গবেষণায়। গবেষণাটি এ বছরের ২২-২৪ জুন কানাডার সানটাবারবারায় আন্তর্জাতিক অঈগ খওগওঞঝ সেমিনারে উপস্থাপিত হয়েছে। এর আগে ২০১৬ সালের নভেম্বর থেকে এ বছরের ফেব্রুয়ারি মাস পর্যন্ত চলে এ গবেষণা।
‘এ স্ট্যাডি অফ হ্যাশট্যাগ একটিভিজম ফর রাইজিং অ্যাওয়ারনেস এবাউট রিভারব্যাংক ইরোশান ইন বাংলাদেশ’ শীর্ষক এ গবেষণাটি করেছেন ইউনিভার্সিটি অব ক্যালিফোর্নিয়া, আরভাইনের পিএইচডির গবেষক মারুফ জুবায়ের। তাঁর তত্ত্বাবধানে ছিলেন ওই বিশ্ববিদ্যালয়ের ইফোরমেটিক্স বিভাগের প্রফেসর ড. বন্নি নরদী এবং নিউইয়র্ক ইউনিভার্সিটির কম্পিউটার বিভাগের প্রফেসর ড. জ্যা চেন।
গবেষণাপত্রটি বর্তমানে বিশ্ববিখ্যাত এসিএম ডিজিটাল লাইব্রেরি (ডিএল) এ সংরক্ষিত আছে। এসিএম ডিজিটাল লাইব্রেরি (ডিএল) হচ্ছে কম্পিউটিং এবং ইনফরমেশন টেকনোলজি বিষয়ের গ্রন্থের জন্য বিশ্বের সবচেয়ে বড় ডাটাবেস। গবেষণার কাজে বাংলাদেশের লক্ষ্মীপুর বিশেষ করে রামগতি, কমলনগর এলাকায় বিভিন্ন জাতীয় ও স্থানীয় গণমাধ্যমের কর্মী এবং সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের নানা ব্যবহারকারী ও তাদের পরিচালিত সামাজিক বিভিন্ন গ্রুপ এবং পেইজ পর্যবেক্ষণ করা হয়েছে। গবেষণা শেষে লক্ষ্মীপুরের নদী ভাঙ্গার ন্যায় পৃথিবীর এ রকম যেকোনো স্থানীয় সমস্যা সামাজিক মাধ্যম ও স্থানীয় গণমাধ্যমে প্রচার করে কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করা সম্ভব বলে মতামত দিয়েছেন গবেষকগণ। যার মাধ্যমে দেখা হয়েছে যে, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের একটি বিশেষ টুল হ্যাশট্যাগ কীভাবে জনগুরুত্বপূর্ণ বিষয়কে একত্রিত করে প্রচার করে।
গবেষক মারুফ জোবায়ের এবং গবেষণাপত্রটি থেকে জানা যায়, এর উদ্দেশ্য ছিল উন্নয়নশীল ও স্বল্পউন্নত দেশে দুর্যোগপীড়িত মানুষ নদী ভাঙ্গার মতো একটি বিষয় সমাধানে কীভাবে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের হ্যাশট্যাগের ব্যবহার করে কার্যকর ভূমিকা রাখতে পারে তা দেখানো। গবেষকগণ ইতোমধ্যে আরো ৮টি দেশের প্রযুক্তি নির্ভর আরো কয়েকটি বিষয় নিয়ে গবেষণা করেছেন।
গবেষণাটিতে যা ছিল
গবেষণাটিতে বলা হয়েছে হ্যাশট্যাগ ব্যবহারের মাধ্যমে ওই এলাকার বেশ কিছু তরুণ ও যুবক তাদের এলাকার নদী ভাঙ্গার সমস্যাগুলো কাক্সিক্ষত ব্যক্তিদের নিকট পৌঁছাতে পেরেছেন এবং সমাধান পেতেও শুরু করেছেন। স্থানীয় সংবাদকর্মী সানা উল্লাহ সানু বিভিন্ন ব্যক্তি ও মিডিয়ায় প্রচারিত নিজ এলাকার নদী ভাঙ্গার সংবাদগুলো একত্রে পাওয়ার জন্য সোস্যাল মিডিয়ায় তিনটি বিশেষ হ্যাশট্যাগ তৈরি করেন। এরপর তিনি তা ব্যবহারের নানাদিক নিয়ে স্থানীয় কমিউনিটি বেইজ অনলাইন সংবাদ মাধ্যম লক্ষ্মীপুরটোয়েন্টিফোরে একটি নিবন্ধন প্রকাশ করেন। তার ডাকে সাড়া দিয়ে ওই এলাকার ইন্টারনেট ব্যবহারকারী তরুণ ও যুবক সোস্যাল মিডিয়ায় হ্যাশট্যাগ ব্যবহার শুরু করে নিজেদের এলাকার নদী ভাঙ্গার খবরগুলো প্রচার শুরু করে।
সাধারণ মানুষ ছাড়াও অল্প সময়ের মধ্যে হ্যাশট্যাগ ব্যবহার করে ওই এলাকার সাংবাদিক, সংবাদমাধ্যম ও সামাজিক সংগঠনগুলো নদী ভাঙ্গার খবর, চিত্র এবং তথ্য অনলাইনে ব্যাপক প্রচার শুরু করে। সংবাদমাধ্যম হিসেবে স্থানীয় অনলাইন গণমাধ্যম লক্ষ্মীপুর টোয়েন্টিফোর, বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর, দৈনিক কালেরকন্ঠ, দৈনিক যুগান্তর, দৈনিক প্রথম আলো, উপকূল বাংলাদেশ ও বিভিন্ন টেলিভিশন চ্যানেল ব্যাপক ভূমিকা রাখে। অন্যদিকে ফেসবুক ভিত্তিক সংগঠন হৃদয়ে রামগতি, ভয়েস অব রামগতি, রামগতি বাঁচাও ছাত্রসংঘ, রামগতি-কমলনগর অনলাইন এ্যাক্টিভিষ্ট ফোরামসহ বেশ কয়েকজন অনলাইন ব্যবহারকারী ব্যাপক ভূমিকা রাখে। এ সকল কাজের স্বীকৃতি হিসেবে সামাজিক আন্দোলনের প্রেক্ষিতে সরকার এখন ওই এলাকায় নদী ভাঙ্গারোধে কাজ শুরু করেছে।
গবেষকের বক্তব্য
গবেষণার বিষয়টি নিয়ে গবেষক মারুফ জোবায়ের যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়া বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্কাইফির মাধ্যমে জানান, ইন্টারনেট ও বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের তথ্য এক জায়গায় ব্যবহার করে কীভাবে স্থানীয় সমস্যা প্রচার ও প্রকাশ করে কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করা যায়, তা গবেষণা করতে গিয়ে তিনি সারা পৃথিবীর মধ্যে বাংলাদেশের লক্ষ্মীপুর জেলার রামগতি ও কমলণগর উপজেলার তথ্য বেশি পেয়েছেন। তিনি জানান, আমিসহ আমার সাথে অন্য গবেষকরা অভিভূত হয়েছে বাংলাদেশের মতো একটি দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলের মানুষ যখন বিশ্বমানের একটি মডেল ব্যবহার করেছে। তিনি আশা করেন- এর মাধ্যমে সারা পৃথিবীতে এ ধারণাটি ছড়িয়ে পড়বে, যেখানে বাংলাদেশ হবে মডেল। যদিও হ্যাশট্যাগ ব্যবহার এর মধ্যেই প্রথম নয়। কিন্তু নদী ভাঙ্গার মতো সমস্যা উপস্থাপনে এটি প্রথম হতে পারে।
হ্যাশট্যাগ
স্থানীয় সাংবাদিক সানা উল্লাহ সানু বলেন, আমরা স্থানীয় সংবাদকর্মীরা প্রায়সময় স্থানীয় সমস্যা হিসেবে নদী ভাঙ্গনের সংবাদ তৈরি করে নিজেদের গণমাধ্যমে প্রেরণ করি। আবার অন্য সাধারণ নাগরিকরা প্রতিদিনই তাদের নিজ নিজ সামাজিক মাধ্যমের প্রোফাইলে নদী ভাঙ্গন বিষয়ে অসংখ্য ছবি, তথ্য এবং ভিডিওসহ নানা বিষয় তুলে আলোচনা করছে। কিন্তু এর সবকিছুই দিনের ব্যবধানে ইন্টারনেটের বিশাল রাজ্যে হারিয়ে যায়। সেজন্য আমি এলাকার নদী ভাঙ্গনের বিষয়ে নানা সংবাদ, ছবি, আলোচনা এবং সমালোচনা একত্রে গুচ্ছভিত্তিক উপস্থাপনের লক্ষ্যে ফেসবুক, টুইটার, গুগল-প্লাস, ইউটিউবের জন্য তিনটি হ্যাশট্যাগ তৈরি করি। তিনি আরো বলেন, আমি বহু আগ থেকেই ব্যক্তিগতভাবে এলাকার নদী ভাঙ্গনের সংবাদের ক্ষেত্রে হ্যাশট্যাগ ব্যববহার করতাম। তবে ২০১৫ সালের শেষদিকে আমার সাংবাদিক ও অনলাইন বন্ধুদের তা জানিয়ে দিই। অনেককে ব্যক্তিগতভাবে সরাসরি বা ফোনে বিষয়টি বুঝিয়ে বলি। এরপর ২০১৬ সালে আমার তৈরি করা হ্যাশট্যাগগুলো ব্যাপকভাবে প্রচার শুরু হয়। আর সেভাবেই বিশ্বের বিভিন্ন দেশে নদী ভাঙার গবেষণা করতে গিয়ে ক্যালিফোর্নিয়া বিশ্ববিদ্যালয় (ইউসি) এর গবেষক মারুফ জোবায়ের লক্ষ্মীপুরের এ তথ্যগুলো নিয়ে গবেষণা শুরু করেন।
ক্যালিফোর্নিয়া ইউনিভার্সিটি
ক্যালিফোর্নিয়া ইউনিভার্সিটি (ইউসি) সারা পৃথিবীর সর্ববৃহৎ ও নামকরা ইউনিভার্সিটির অন্যতম। চাঁদের মাটিতে প্রথম পা রাখা নভোচারী নীল আমষ্ট্রং এ ইউনিভার্সিটির ছাত্র। ২০১৬ সাল পর্যন্ত এ ইউনিভার্সিটির ৬২ জন ছাত্র নোবেল পুরস্কার পেয়েছেন। এখন পর্যন্ত এ ইউনিভার্সিটির ছাত্র ও গবেষণাগারে ১৮টি রাসায়নিক পদার্থ আবিস্কৃত হয়েছে। ক্যালিফোর্নিয়া ইউনিভার্সিটির ১০টি ক্যাম্পাসের অন্যতম ইউনিভার্সিটি অব ক্যালিফোর্নিয়া, আরভাইন (ইউসিআই)। যেটি উচ্চতর গবেষণার জন্য পৃথিবীখ্যাত। এটি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়া আরভাইনে অবস্থিত। সে ইউনিভার্সিটির ইনফরমেশান এন্ড কমিউনিকেশন সাইন্স ফ্যাকাল্টিতে পিএইচডি ডিগ্রির গবেষণায় স্থান পেয়েছে বাংলাদেশের উপকূলীয় এবং নদীভাঙ্গা কবলিত লক্ষ্মীপুর জেলা।
-জাহাঙ্গীর লিটন