Sun Mercury Venus Ve Ves
বিশেষ খবর
লক্ষ্মীপুরে মডেল থানা পুলিশের আলোচনা সভা ও আনন্দ উদযাপন  লক্ষ্মীপুরে বিএনপি নেতা ইউপি চেয়ারম্যান কামরুজ্জামান সোহেলের সংবাদ সম্মেলন  লক্ষ্মীপুর মডেল থানায় ওসি (তদন্ত) শিপন বড়ুয়ার যোগদান  ঘর মেরামতে ঢেউটিন উপহার পেলেন লক্ষ্মীপুরের দৃষ্টিপ্রতিবন্ধী জসিম  রায়পুর প্রেস ক্লাবের নির্বাচনে সভাপতি মাহবুবুল আলম মিন্টু ও সম্পাদক আনোয়ার হোসেন নির্বাচিত 

উদারপ্রাণ সমাজসেবী, কল্যাণকামী শিল্পপতি এলাকাপ্রেমী ও দুস্থ-অসহায়দের সেবায় নিবেদিতপ্রাণ রোটারিয়ান ইঞ্জিনিয়ার মোহাঃ মোহাব্বত উল্যাহ

বর্ণিল গুণাবলির কর্মযোগী এবং উদারপ্রাণ সমাজসেবী, শিক্ষানুরাগী ও কল্যাণকামী ব্যক্তিত্ব ইঞ্জিনিয়ার মোহাঃ মোহাব্বত উল্যাহ। যিনি অনন্য সফল ব্যবসায়ী ও শিল্পপতি হিসেবে সুপরিচিত; নিজ জন্মস্থান লক্ষ্মীপুরকেও করেছেন গর্বিত। তিনি নিপ্পন গ্রুপের চেয়ারম্যান, ইঞ্জিনিয়ারিং লিংকার্সের স্বত্তাধিকারী এবং এনআরবি গ্লোবাল লাইফ ইন্স্যুরেন্স এর উদ্যোক্তা-পরিচালক।
ইঞ্জিনিয়ার মোহাব্বত উল্যাহ ইলেকট্রোনিক্স বিষয়ে শিক্ষাজীবন শেষে জাপানস্থ বিখ্যাত ক্যানন কোম্পানীতে চাকরি শুরু করে ম্যানেজার পদে উন্নীত হন। কিন্তু ১৯৭৮ সালে নৈতিক কারণে লোভনীয় চাকরিতে ইস্তফা দিয়ে ইলেকট্রনিক্স পণ্যাদি বাজারজাতকরণ ব্যবসা শুরু করেন এবং ১৯৯০ সালে অংশীদারিত্ব মালিকানায় টেলিভিশন প্রস্তুতকারক শিল্প স্থাপন এবং ১৯৯৬ সালে এককভাবে প্রতিষ্ঠা করেন নিপ্পন ইন্ডাষ্ট্রিজ (প্রাঃ) লিঃ, যা বর্তমানে দেশব্যাপী সুপরিচিত ও স্বীকৃত এলইডি টেলিভিশন, রেফ্রিজারেটর, ডীপ-ফ্রিজার, বেভারেজ কুলার, এ্যাডভার্টাাইজিং ডিসপ্লে, এয়ারকন্ডিশনারসহ যাবতীয় গুণগত মানসম্পন্ন ইলেকট্রনিক্স দ্রব্যাদি নিজস্ব কারখানায় প্রস্তুত পূর্বক Goldstar এবং Mitsui ব্রান্ডে বাজারজাত করে আসছেন।
ব্যবসায় অঙ্গনে বহুল সুপরিচিত এ স্বনামধন্য ব্যক্তিত্ব বাংলাদেশ সরকার কর্তৃক নির্বাচিত সিআইপি। তিনি বাংলাদেশ টিভি ম্যানুফেক্সারিং এ্যাসোসিয়েশন, বিটিএমএ’র প্রতিষ্ঠাতা এবং সভাপতি হিসেবে যুগের অধিক সময় সভাপতির দায়িত্ব পালনকালীন সংশ্লিষ্ট সেক্টরে প্রায় ৫০টি শিল্প প্রতিষ্ঠান স্থাপনের মাধ্যমে মহিলা শ্রমিকসহ বহু কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করেছেন; পাশাপাশি বিনোদনের অন্যতম উপকরণ টেলিভিশনকে দেশের সাধারণ জনগোষ্ঠীর নিকট সুলভমূল্যে পৌঁছে দিতে অনন্য ভূমিকা পালন করেন।
ইঞ্জিনিয়ার মোহাব্বত উল্যাহ দেশীয় শীর্ষ সংগঠন এফবিসিসিআই’র সদ্যবিদায়ী পরিচালক। এছাড়াও তিনি বিভিন্ন চেম্বার ও এ্যাসোসিয়েশনের সদস্য এবং তৃতীয় মেয়াদে শিল্প বিষয়ক একমাত্র সংগঠন বিসিআই’র সম্মানিত পরিচালক এবং সরকারি সংস্থা বিএসটিআই’র মাননিয়ন্ত্রণ কমিটির সহ-সভাপতি পদে দায়িত্ব পালন করছেন।
ইঞ্জিনিয়ার মোহাব্বত উল্যাহ রোটারী ক্লাব অব জাহাঙ্গীর নগরের সাবেক সভাপতি ও গভর্ণর কর্তৃক গোল্ড মেডেলপ্রাপ্ত। পরবর্তীতে রোটারী ডিস্ট্রিক্ট-৩২৮০ বাংলাদেশ এর ডেপুটি ও ল্যাফটেনেন্ট গভর্ণর পদে দায়িত্ব পালন করেন। তিনি একজন মাল্ট্রিপল পল হ্যারিস ফ্যালো এবং দেশের বৃহত্তম এনজিও প্রতিষ্ঠান ইউসেফ এর কর্মসংস্থান কমিটির চেয়ারম্যান; ইউরোপিয়ান ইউনিয়ন ও সেভ দ্যা চিলড্রেন কর্তৃক সিএসআর সম্মাননা-২০১৪ প্রাপ্ত। তিনি গুলশান ক্লাব, বনানী ক্লাব ও ঢাকা বোট ক্লাব এর স্থায়ী সদস্য। আন্তর্জাতিক পরিমন্ডলে ব্যবসায় সমাজেও তাঁর সপ্রতিভ অংশগ্রহণ উল্লেখযোগ্য। তিনি সার্ক, সিসিআই এর কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সফরসঙ্গী ছাড়াও ব্যবসায় প্রতিনিধি ও ব্যক্তিগত ব্যবসা প্রসারে প্রায় ২৭টি দেশ সফর করেন।
রোটারিয়ান মোহাব্বত উল্যাহ ব্যবসায়ীক সফলতার পাশাপাশি সমাজসেবার ক্ষেত্রেও অগ্রগামী। জন্ম-এলাকার দুস্থ পরিবারকে গৃহনির্মাণ, মসজিদ, মাদ্রাসা, এতিমখানা, বিশেষ করে অগণিত মেধাবী ছাত্র-ছাত্রীর পড়া-লেখার নীরব অনুদান প্রদানকারী এ ব্যক্তিত্ব এলাকার ঋণ পরিশোধে সর্বদাই সচেষ্ট। তিনি ঢাকাস্থ লক্ষ্মীপুর যুবকল্যাণ সমিতির প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে সক্রিয় সদস্য এবং বর্তমানে লক্ষ্মীপুর জেলা সমিতির সহ-সভাপতি পদে অধিষ্ঠিত থেকে এলাকার উন্নয়নে ভূমিকা রাখছেন। নিজ এলাকায় সুবিধাবঞ্চিত দরিদ্র জনগোষ্ঠীর জন্য স্বাস্থ্যসেবা কেন্দ্র ও যুব সমাজকে সাবলম্বী করতে কারিগরি প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউট প্রতিষ্ঠা তাঁর জীবনের অন্যতম লক্ষ্য।
জনাব মোহাব্বত উল্যাহ ১৯৫৪ সালে লক্ষ্মীপুরের দালাল বাজার পূর্ব নন্দনপুরে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি ১৯৮২ সালে মূর্শিদা আক্তার (মনিকা) এর সঙ্গে বিবাহ সূত্রে আবদ্ধ হন। দেশে-বিদেশে উচ্চশিক্ষিত তাঁদের কন্যাদ্বয় স্ব-স্ব ক্ষেত্রে সমুজ্জ্বল; একমাত্র ছেলে ৯ম শ্রেণিতে অধ্যয়নরত। জনাব মোহাব্বত উল্যাহ ২০০৬ সালে এবং স্বস্ত্রীক ২০১৫ সালে হজ্জ্বব্রত পালন করেন।
শিক্ষা-সমাজসেবা ও মানবিক মূল্যবোধে উজ্জীবিত ইঞ্জিনিয়ার মোহাব্বত উল্যাহ এর এরূপ প্রাগ্রসর ও প্রেরণাদায়ী কার্যক্রমকে প্রজন্ম থেকে প্রজন্মে, শতাব্দী থেকে শতাব্দীতে অনুকরণীয় ও স্মরণীয়-বরণীয় করতে লক্ষ্মীপুর বার্তা’র ৩০ বর্ষ উপলক্ষে তাঁকে অতল শ্রদ্ধা ও অসীম ভালোবাসায় লক্ষ্মীপুর বার্তা ফাউন্ডেশনের পক্ষ থেকে শীর্ষ সমাজসেবী সম্মাননা জ্ঞাপন করছি। সেইসাথে তাঁর সুখ-সুস্বাস্থ্য ও অনন্ত সৃষ্টিশীল দীর্ঘজীবন কামনা করছি।