Sun Mercury Venus Ve Ves
বিশেষ খবর
লক্ষ্মীপুরে মডেল থানা পুলিশের আলোচনা সভা ও আনন্দ উদযাপন  লক্ষ্মীপুরে বিএনপি নেতা ইউপি চেয়ারম্যান কামরুজ্জামান সোহেলের সংবাদ সম্মেলন  লক্ষ্মীপুর মডেল থানায় ওসি (তদন্ত) শিপন বড়ুয়ার যোগদান  ঘর মেরামতে ঢেউটিন উপহার পেলেন লক্ষ্মীপুরের দৃষ্টিপ্রতিবন্ধী জসিম  রায়পুর প্রেস ক্লাবের নির্বাচনে সভাপতি মাহবুবুল আলম মিন্টু ও সম্পাদক আনোয়ার হোসেন নির্বাচিত 

লক্ষ্মীপুরবাসীদের সুখ-দুঃখের সাথী, স্বাধীনতা সংগ্রামী বীর মুক্তিযোদ্ধা এ কে এম শাহজাহান কামাল এমপি

জননন্দিত, নীতিনিষ্ঠ, শীর্ষ-প্রবীণ রাজনীতিবিদ, লক্ষ্মীপুরবাসীদের চিরবন্ধু জনাব এ কে এম শাহজাহান কামাল এমপি; লক্ষ্মীপুরের উন্নয়ন যাঁর ধ্যান-জ্ঞান, যিনি স্বপ্ন দেখেন এক সমৃদ্ধ লক্ষ্মীপুরের; যা হবে সন্ত্রাসমুক্ত ও শান্তির অভয়ারণ্য। ১০ম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিজয়ী হয়ে লক্ষ্মীপুরের উন্নয়নে নিরলস কাজ করে যাচ্ছেন শাহজাহান কামাল। তিনি ঘোষণা দেনÑ দলমত নির্বিশেষে সবার সহযোগিতায় লক্ষ্মীপুরকে শান্তি ও সমৃদ্ধির জনপদে পরিণত করব।
অজাতশত্রু জনাব শাহজাহান কামাল জনগণের কাছাকাছি থাকতে পছন্দ করেন। তাঁর কাছে এলাকার সমস্যা নিয়ে গেলে তিনি তাদের সানন্দে গ্রহণ করেন, তাদের কথা ধৈর্য সহকারে শোনেন, সমস্যা সমাধানের সর্বাত্মক চেষ্টা করেন। এলাকার মানুষের কাজ করে দিতে পারলে তিনি অনুভব করেন স্বর্গীয় প্রশান্তি, অপার আনন্দ। এলাকার উন্নয়নে দেয়া জনগণের পরামর্শকে তিনি মূল্যবান উপহার হিসেবে গ্রহণ করেন। আর এরূপ পরামর্শের মাধ্যমে তিনি লক্ষ্মীপুরের উন্নয়নের পথকে দিন দিন প্রসারিত করে চলেছেন।
জনাব শাহজাহান কামাল আপাদমস্তক একজন রাজনীতিবিদ। রাজনীতিকে মিশিয়ে নিয়েছেন জীবনের সাথে। ছাত্র-রাজনীতি দিয়ে অভিষেক হয়েছিল তাঁর রাজনৈতিক জীবনের। সে ধারাবাহিকতায় পরবর্তীতে তিনি রাজনৈতিক বিভিন্ন কর্মকান্ডে সম্পৃক্ত হয়েছেন; স্থানীয় এবং জাতীয় গুরুত্বপূর্ণ বিভিন্ন ইস্যুতে সক্রিয় অংশগ্রহণ করেছেন। ঊনসত্তরের গণঅভ্যুত্থানে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-সমাজকে ১১ দফার আন্দোলনে সংগঠিত করেছেন। এছাড়া বঙ্গবন্ধুর ৬ দফা আন্দোলনেও তিনি সক্রিয় ভূমিকা রেখেছেন। আইয়ুব বিরোধী আন্দোলনে ও লক্ষ্মীপুর জেলা বাস্তবায়ন আন্দোলনে তিনি কারাবরণ করেছেন। হামিদুর রহমান শিক্ষা কমিশনের বিরুদ্ধে আন্দোলনে তিনি নেতৃত্ব দেন। তিনি মুক্তিযুদ্ধে কেবল সক্রিয়ভাবে অংশগ্রহণই করেননি, সক্রিয় সংগঠক হিসেবে স্বাধীনতা সংগ্রামে অংশগ্রহণ করতে সবাইকে উদ্বুদ্ধ করে দেশপ্রেমের বিরল দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন। বীর মুক্তিযোদ্ধা শাহজাহান কামাল ১৯৭৩ সালে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সাথে তৎকালীন সংসদে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়ে যুদ্ধবিধ্বস্ত, ধ্বংসপ্রাপ্ত দেশের ঘরবাড়ি, রাস্তাঘাট, পুল-কালভার্ট পুনঃনির্মাণে বিপুল উৎসাহ-উদ্দীপনা নিয়ে কাজ শুরু করেন।
দলমত নির্বিশেষে সবার কাছে গ্রহণযোগ্য জনাব শাহজাহান কামাল জাতীয় সংসদ সদস্য হিসেবে দেশ-উন্নয়ন কার্যক্রমের পাশাপাশি নিজ জন্ম-এলাকার মানুষের সেবায় দিবানিশি নিরলস কাজ করে যাচ্ছেন। শাহজাহান কামাল লক্ষ্মীপুর সরকারি কলেজ ও লক্ষ্মীপুর সরকারি মহিলা কলেজ প্রতিষ্ঠায় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখেন। তিনি জেলার শতাধিক স্কুল, কলেজ, মন্দির, মসজিদ, মাদ্রাসা, গ্রামীণ অবকাঠামো উন্নয়ন, রাস্তা-ঘাট, পুল-কালভার্টের উন্নয়ন করেছেন। শাহজাহান কামাল লক্ষ্মীপুর জেলা পরিষদ প্রশাসক এবং জনতা ব্যাংকের ডিরেক্টর থাকাকালীন লক্ষ্মীপুরের গরিব-মেধাবী ছাত্র-ছাত্রীদের শিক্ষা-সহায়তা হিসেবে ৩০ থেকে ৪০ লক্ষ টাকা অনুদান দিয়েছেন। জটিল রোগীদের লক্ষ্মীপুর থেকে ঢাকায় এনে উন্নত চিকিৎসার ব্যবস্থা করেছেন।
সমাজসেবা ও জনসেবায় নিবেদিত জনাব এ কে এম শাহজাহান কামাল এর এরূপ প্রাগ্রসর ও প্রেরণাদায়ী কার্যক্রমকে প্রজন্ম থেকে প্রজন্মে, শতাব্দী থেকে শতাব্দীতে অনুকরণীয় ও স্মরণীয়-বরণীয় করতে লক্ষ্মীপুর বার্তা’র ৩০ বর্ষ উপলক্ষে তাঁকে অতল শ্রদ্ধা ও অসীম ভালোবাসায় লক্ষ্মীপুর বার্তা ফাউন্ডেশনের পক্ষ থেকে শীর্ষ সমাজসেবী সম্মাননা জ্ঞাপন করছি। সেইসাথে তাঁর সুখ-সুস্বাস্থ্য ও অনন্ত সৃষ্টিশীল দীর্ঘজীবন কামনা করছি।